আশান উজ জামান

দেখা। লেখা। পড়া

১.
তুমি আমার দিগন্ত। তাই
একবারও না পেয়ে তোমায় বারে বারে হারাই!

২.
পথ কখনো নেয় না বিদায় পথেই ফিরে আসে
আরেক শ্বাসের ইচ্ছে রাখি প্রতিটা নিঃশ্বাসে

৩.
মানুষ মিছে কষ্ট খোঁজে আঘাতে আঘাতে
আঘাতই হাত রাখতে শেখায় ঠিক মানুষের হাতে!

৪.
আরেক বেলার স্বপ্ন দেখেই জীবন আধেক যায়,
রাতের সাথে থাকে মানুষ ভোরের অপেক্ষায়..

৫.
বৈঠারা পিছে গিয়ে ঠেলে দেয় নৌকাকে, যেরকম পাখির ডানা;
কিছু কিছু পিছুটান পিছে থেকে টানে না, জানে না সে পিছনে টানা।

৬.
আমার বালতি ভরা পানি, তাকে সমুদ্র জ্ঞান করি
সারা ক্লান্তদিনের শেষে তাতে সমুদ্রস্নান করি

৭.
আমি যে তোমায় ভালোবেসেছি, ভুলে যেতে পারো; তা যাও।
তুমিও আমায় ভালোবেসেছো, ভুলবে কী করে সেটাও?

৯.
আজ আবার দেখা হলো। বুক জুড়ে তবু হাহাকার
সবকিছু চেনা চেনা, তুমি শুধু অচেনা আমার!

১০
হায়,
যাকে আমি ভালোবেসে কাঁদি, সে জলে যে সে-ই ভেসে যায়!

১১
সে তো যায়ই, আলো বেয়ে এগিয়ে যে যায়
আলো হয়ে ফিরে এলে চোখ ঝলসায়

১২
বৃষ্টি-ভেজার ইচ্ছে হলে
ভিজব তোমার চুলচুয়ানো জলে!

১৩
আমার চোখে স্নান করে যায় ময়লামানুষ, স্নান করে শ্যাল কুকুর
আমার দু’চোখ সমুদ্র না, শ্যাওলাজমা পুকুর।

[২০১২-১৭]

জোড়া-জুড়ি!&rdquo লেখায় ১জন মন্তব্য করেছেন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।